ইসলামি শিক্ষা ও সংস্কৃতি

ইসলাম মানব জাতির ইহকালীন ও পরকালীন উৎকর্ষ সাধনের জন্য শিক্ষাকে অপরিসীম গুরুত্ব দিয়েছে । আল-কুরআনের প্রথম বাণি ইকরা অর্থাৎ পড় ।
এ থেকে ইসলামে জ্ঞান-বিজ্ঞান চর্চার গুরুত্ব অনুধাবন করা যায় । মহানবি (স.)
সাহাবিদের শিক্ষার জন্য মক্কায় দারুল আরকাম নামক শিক্ষা কেন্দ্র স্থাপন করেন এবং মসজিদে নববি মুসলমানদের শিক্ষা কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলেন । খুলাফায়ে রাশেদিনের আমলেও মুসলমানগণ শিক্ষা বিস্তারে অবদান রাখেন ।
উমাইয়া ও আব্বাসী শাসনামলে মুসলিম মনীষীগণ জ্ঞান-বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখায় অবদান রাখেন ।
রসায়নশাস্তে , ভূগোলবিদ্যা, চিকিতসাবিদ্দা, বিজগনিত, পাটিগণিত, জ্যামিতি, সাহিত্য, ইতিহাস ও জ্যোতিবিজ্ঞান প্রভৃতি শাস্তে মুসলমানগণ বিস্ময়কর অবদান রাখেন । মুসলমানদের শিক্ষার বুনিয়াদ অতি শৈশবকালে  মকতব থেকে শুরু হয় ।
পির-মাশায়িখ, সুফী সাধক ও ইসলাম প্রচারকদের মাধ্যমে বাংলাদেশে ইসলাম প্রচার হয়েছে ।  তাঁরা এদেশে অসংখ্য মসজিদ-মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করেন। আলোচ্য ইউনিটে- নিচের পাঠ্যসমূহ অধ্যয়ন করা হবে।

ইসলামের পরিচয়

ইসলাম আল্লাহ তাআলার একমাত্র মনোনীত ধর্ম। ইসলাম আরবি সব্দ। এর অর্থ আত্নসমপণ করা, আনুগত্য প্রকাশ করা, শান্তির পথে চলা, মুসলমান হওয়া।
বিশ্বজগতের সৃষ্ঠীকর্তা, পালনকর্তা, জিবনদাতা ও  মৃত্যুদাতা  আল্লাহ তাআলার কাছে বিনা দ্বিধায় আত্মসমপণ করে তার আদেশ নিষেধ মেনে চলা। তাঁর দেয়া বিধান অনুসারে জীবন যাপন করা। আর যিনি ইসলামের বিধান অনুসারে জীবন যাপন করেন তিনি হলেন মুসলিম।

Leave a Comment: