শিক্ষা বিস্তারে মহানবি (স.) অবদান

শিক্ষা বিস্তারেও বিশ্ব নবী হযরত মুহাম্মদ (স.) অনুকরণীয় ব্যক্তিত্ব

হযরত মুহাম্মাদ (স.) ছিলেন বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ শিক্ষক। তিনি নবুওয়াত লাভের পর থেকে তাঁর গৃহকে শিক্ষালয় হিসেবে ব্যবহার করেন। তাঁর স্ত্রি হযরত খাদিজা (রা) ও হযরত আয়েশা (রা) ছিলেন আদর্শ শিক্ষক। মহানবি (স.) এর মৃত্যুর পর তার প্রবিত্র স্ত্রিগণের গৃহ ছিল নারীদের শিক্ষা কেন্দ্র। হযরত হাফসা (রা) ও উম্মে সালমা (রা) নারী শিক্ষাই অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন।

শিক্ষা বিস্তারে মহানবি (স.) এর পদক্ষেপ

  • নবুওয়াতের প্রাথমিক পর্যায়ে মক্কার স্থানে হযরত আরকাম (রা.) এর বাড়িটি বিদ্যা শিক্ষার কেন্দ্র হিসেবে পরিগণিত হয়। এখানে মুসলিমগণ একত্রিত হয়ে শিক্ষা লাভ করতেন। তাছাড়া মহানবি হযরত মুহাম্মাদ (স.) ইসলাম গ্রহণকারী নও মুসলিমদের শিক্ষা দানের জন্য গোত্রে গোত্রে শিক্ষক সাহাবিদের পাঠাতেন। আর সেখানে সাহাবিদের তত্ত্বাবধানে শিক্ষায়তন গড়ে উঠত।
  • ​মক্কা থেকে হিজরতের পর তিনি মসজিদে নববিকে শিক্ষার মহাকেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলেন। তিনি মসজিদে নববির প্রাঙ্গণে সুফ্ ফা নামে একটি আবাসিক বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তলেন। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে বহু মানুষ এখানে শিক্ষা গ্রহণের জন্য আসতেন। অনেক সাহাবি সুফ্ ফা বিশ্ববিদ্যালয়ের আজীবন ছাত্র ও শিক্ষকের ভূমিকায় ব্যাপৃত ছিলেন । (মহানবি স.) নিরক্ষরতা দূরীকরণ ও শিক্ষা বিস্তারে এত গুরুত্ব দিতেন যে, বদরের যুদ্ধে শিক্ষিত যুদ্ধে বন্দীদের মুক্তিপণ নিধার্য করে ছিলেন কয়েক জন নিরক্ষর মুসলিমকে শিক্ষাদান করার মাধ্যমে।
  • ​হযরত মুহাম্মাদ (স.) এর শিক্ষার প্রভাবে ও প্রত্যক্ষ প্রেরণায় আরবরা এক সুসভ্য শিক্ষিত জাতিতে পরিণত হয়।

Leave a Comment: