Category Archives for আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী

সাধারণ জ্ঞান বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী

সাধারণ জ্ঞান বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী

Untitled-1

 

সাধারণ জ্ঞান থেকে যে কোন চাকরি বা বিশ্ববিদ্যলয়ের ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্ন আসেই। বিশেষ করে সাধারণ জ্ঞান বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী বেশি প্রশ্ন আসে। এই জন্যে আমাদের কে এই বিষয় টিকে গুরুত্বের সাথে নিতে হয়।  শিক্ষার্থীদের সুবিধার জন্য আমরা নিয়মিত সাধারণ জ্ঞান সম্পর্কে পোস্ট দিয়ে যাচ্ছি। আশা করি আপনাদের অনেক উপকারে আসবে। যদি কারও সামান্য উপকারে আসে তাহলেই bdgovtjobcircular.com কর্তৃপক্ষের এই পরিশ্রম সার্থক।

মনোযোগ দিন

Capture

 

 

eee

 

 

weq

 

 

পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করুন এখান থেকে 

ওয়ার্ড ফাইল ডাউনলোড করুন এখান থেকে 

 

 CLICK HERE FOR MORE

BD Govt Job Circular Official Facebook Page

Please connect all time with us on Facebook : https://www.facebook.com/bdgovtjobspreparation/

Don’t Forget to like our facebook page Please.

প্রিয় বন্ধু, ভাই ও বোনের জন্য ফেসবুক ও টুইটারে শেয়ার করুণ আমাদের পেজটি।

Thank you

 

নবম ও দশম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় এর প্রশ্নের সমাধান

নবম ও দশম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় এর ১০০ টি গুরুত্বপুর্ণ বহুনির্বাচনী প্রশ্নের সমাধান

segaf

 

সুপ্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুরা ভালো ফলাফল এর জন্য সকল বিষয়ের প্রতি সমান নজর দিতে হয়। তবে বিশেষ করে বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় এর দিকে একটু বেশি নজর রাখা উচিত। শুধুমাত্র ভালো ফলফল নয় বরং অনেক চাকরি এবং ভর্তি পরীক্ষায় এখান থেকে অনেক প্রশ্ন আসে। এই জন্যে আমরা আপনাদের জন্যে নিয়ে এসেছি অনুশীলনের একটি গুরুত্বপুর্ণ ওয়েবসাইট। আপনারা এখানে আপনাদের পছন্দের মত পিডিএফ বা ওয়ার্ড  ফাইলে  ডাউনলোড করে প্রয়োজন মত অনুশীলনের কাজে লাগাতে পারেন।

সর্বদা আমাদের সাথে যুক্ত থাকেন ফেসবুকে এবং টুইটারে। নিচে খেয়াল করুন।

erregergtter

 

বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়(নবমদশম শ্রেণি)
প্রথম দুই অধ্যায় পূর্ববাংলার আন্দোলন ও জাতীয়তাবাদের উত্থান(১৯৪৭–১৯৭০) এবং স্বাধীন বাংলাদেশ) গুরুত্বপূর্ণ ১০০ প্রশ্ন
বিঃদ্রঃ বেশি কমন প্রশ্নগুলো দেওয়া হয় নি৷

এখনে ১৯ টি প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হল।  বাকিটা পিডিএফ এবং ওয়ার্ড ফাইলে দেখুন 

1৷ পারিবারিক সহিংসতা প্রতিরোধ ও সুরক্ষা আইন কত সালে প্রণীত হয়?
ⓐ 2011 ⓑ 2010 ⓒ 2012 ⓓ 2009
উত্তরঃ b
2৷ সর্বশেষ শিক্ষানীতি প্রণিত হয় কত সালে?
ⓐ 2010 ⓑ 2012 ⓒ 2011 ⓓ 2013
উত্তরঃ a
3৷ গণতন্ত্রের পুনঃযাত্রা শুরু হয় কত সালে?
ⓐ 1991 ⓑ 1990 ⓒ 1972 ⓓ 1989
উত্তরঃb
4৷ 22 টি ছাত্র সংগঠন “সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্য” গঠন করা হয় কত সালে?
ⓐ 1991 ⓑ 1989 ⓒ 1988 ⓓ 1990
উত্তরঃd
5৷ গণতন্ত্র মুক্তি পাক কথাটি নূর হোসেন এর কোথায় লেখা ছিল?
ⓐ বুকে ⓑ পিঠে ⓒ বুকে ও পিঠে ⓓ হাতের ব্যানারে
উত্তরঃ b
6৷ চতুর্থ জাতীয় সংসদ নির্বাচন কত সালে অনুষ্ঠিত হয়?
ⓐ 1987 ⓑ 1989 ⓒ 1986 ⓓ 1988
উত্তরঃ d
7৷ বাংলাদেশে দ্বিতীয় গনভোট কত সালে হয়?
ⓐ 1977 ⓑ 1984 ⓒ 1985 ⓓ 1979
উত্তরঃ c
8৷ ১৯৯০ সালের কত তারিখে এরশাদ পদত্যাগ করেন?
ⓐ ৬ নভেম্বর ⓑ ৬ ডিসেম্বর ⓒ ৪ ডিসেম্বর ⓓ ৫ ডিসেম্বর
উত্তরঃ b
9৷ বাংলাদেশে প্রথমবারের মত গণভোট হয় কত সালে?
ⓐ 1973 ⓑ 1977 ⓒ 1979 ⓓ 1984
উত্তরঃb
10৷ দক্ষিন এশিয়ায় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা গঠনের উদ্যোগ কে নিয়েছিলেন?
ⓐ শেখ মুজিবর রহমান ⓑ হুসেন মুহাম্মদ এরশাদ ⓒ জিয়াউর রহমান ⓓ শেখ হাসিনা ৷
উত্তরঃc

11৷ দ্বিতীয় সংসদ নির্বাচন কত সালে অনুষ্ঠিত হয়?
ⓐ 1986 ⓑ 1978 ⓒ 1979 ⓓ 1977
উত্তরঃc

12৷ কার শাসন আমলে বাংলাদেশের রাজনীতি ও পররাষ্ট্রনীতিতে ব্যাপক পরিবর্তন হয়?
ⓐ এরশাদের আমলে ⓑ শেখ মুজিবের আমলে ⓒ জিয়াউর রহমানের আমলে ⓓ খন্দকার মোস্তাকের আমলে
উত্তরঃc

13৷ কততম সংশোধনীকে দেশের সর্বোচ্চ আদালত অবৈধ ঘোষণা করে?
ⓐ ৫ম ⓑ ৭ম ⓒ ১৩তম ⓓ সবগুলো
উত্তরঃd

14৷ রাজনীতিতে ধর্মের অপব্যবহারের পথ তৈরি করেন কে?
ⓐ হুসেন মুহাম্মদ এরশাদ ⓑ জিয়াউর রহমান ⓒ খন্দকার মুস্তাক আহমেদ ⓓ কেউ নন ৷
উত্তরঃb

15৷ কতসালে রক্তপাতহীন এক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে এরশাদ ক্ষমতা দখল করেন?
ⓐ 1981 ⓑ 1982 ⓒ 1983 ⓓ 1980
উত্তরঃb

16৷ এরশাদ বিরোধী আন্দলনে নূর হুসেন কত সালে পুলিশের গুলিতে নিহত হন?
ⓐ 1987 ⓑ 1988 ⓒ 1989 ⓓ 1990
উত্তরঃa

17৷ গণতন্ত্রের অভিযাত্রায় জাতিকে নেতৃত্ব দেওয়ার দায়িত্ব গ্রহণ করেন কে?
ⓐ বিচারপতি হাবিবুর রহমান ⓑ বিচারপতি সাহাবুদ্দিন আহমেদ ⓒ রাষ্ট্রপতি ইয়াজ উদ্দিন আহমেদ ⓓ ফখরুদ্দীন আহমেদ
উত্তরঃb

18৷ কততম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মাধ্যমে গনতান্ত্রিক ধারা চালু হয়?
ⓐ ৪র্থ ⓑ ৬ষ্ট ⓒ ৭ম ⓓ ৫ম
উত্তরঃd

19৷ 1972 সালে বাংলাদেশে দারিদ্র্যের হার ছিল কত শতাংশ?

ⓐ ৩০% ⓑ ৭০% ⓒ ৭১% ⓓ ৪৫%
উত্তরঃb

 

সম্পুর্ণফাইল পিডিএফ ডাউনলোড করুণ এখন থেকে

 

ওয়ার্ড ফাইল ডাউনলোড করুণ এখন থেকে

 

CLICK HERE FOR MORE

BD Govt Job Circular Official Facebook Page

Please connect all time with us on Facebook : https://www.facebook.com/bdgovtjobspreparation/

Don’t Forget to like our Facebook page Please.

প্রিয় বন্ধু, ভাই ও বোনের জন্য ফেসবুক ও টুইটারে শেয়ার করুণ আমাদের পেজটি।

Thanks you

রোহিঙ্গা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেখুন, পড়ুন এবং জানুন

রোহিঙ্গা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দেখুন, পড়ুন এবং জানুন 

 

_92090256-copy

 

সাম্প্রতিক সময়ে রোহিঙ্গা ইস্যুটি একটি গুরুত্বপুর্ণ ঘটনা। যদিও রোহিঙ্গা সমস্যাটি সাম্প্রতিক নয় । তবে অতি-সম্প্রতি এইঘটনাটি বিশ্বব্যাপি আলোড়ন তুলেছে। আমারা অনেকেই মনেকরি যে রোহিঙ্গা হয়তো উদবাস্তু জাতি। তবে এই ধারণাটা  একেবারেই ভুল।তারা মায়ানমারের একটি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী।যে জাতির আধিকাংশই মুসলিম বা ইসলাম ধর্মের আধীবাসী। আসুন আমরা  এই  ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও তাদের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস জেনে নিই।

 

রোহিঙ্গা
রোহিঙ্গা আদিবাসী জনগোষ্ঠী পশ্চিম মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যের একটি উলেখযোগ্য নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী। এরা ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত। রোহিঙ্গাদের আলাদা ভাষা থাকলেও তা অলিখিত। মায়ানমারের আকিয়াব, রেথেডাং, বুথিডাং মংডু, কিয়ক্টাও, মাম্ব্রা, পাত্তরকিল্লা এলাকায় এদের বাস। বর্তমান ২০১২ সালে, প্রায় ৮,০০,০০০ রোহিঙ্গা মায়ানমারে বসবাস করে। মায়ানমার ছাড়াও ৫ লক্ষের অধিক রোহিঙ্গা বাংলাদেশে এবং প্রায় ৫লাখ সৌদিআরবে বাস করে বলে ধারনা করা হয় যারা বিভিন্ন সময় বার্মা সরকারের নির্যাতনের কারণে দেশ ত্যাগ করতে বাধ্য হয়। জাতিসংঘের তথ্যমতে, রোহিঙ্গারা বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে নির্যাতিত জনগোষ্ঠী।

কারা রোহিঙ্গা ?
বর্তমান মিয়ানমারের রোহিং (আরাকানের পুরনো নাম) এলাকায় এ জনগোষ্ঠীর বসবাস। ইতিহাস ও ভূগোল বলছে, রাখাইন প্রদেশের উত্তর অংশে বাঙালি, পার্সিয়ান, তুর্কি, মোগল, আরবীয় ও পাঠানরা বঙ্গোপসাগরের উপকূল বরাবর বসতি স্থাপন করেছে। তাদের কথ্য ভাষায় চট্টগ্রামের স্থানীয় উচ্চারণের প্রভাব রয়েছে। উর্দু, হিন্দি, আরবি শব্দও রয়েছে।

রাখাইনে দুটি সম্প্রদায়ের বসবাস ‘মগ’ ও ‘রোহিঙ্গা’। মগরা বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী। মগের মুল্লুক কথাটি বাংলাদেশে পরিচিত। দস্যুবৃত্তির কারণেই এমন নাম হয়েছে ‘মগ’দের। এক সময় তাদের দৌরাত্ম্য ঢাকা পর্যন্ত পৌঁছেছিল। মোগলরা তাদের তাড়া করে জঙ্গলে ফেরত পাঠায়। রোহিঙ্গাদের সম্পর্কে একটি প্রচলিত গল্প রয়েছে এভাবে_ সপ্তম শতাব্দীতে বঙ্গোপসাগরে ডুবে যাওয়া একটি জাহাজ থেকে বেঁচে যাওয়া লোকজন উপকূলে আশ্রয় নিয়ে বলেন, আল্লাহর রহমে বেঁচে গেছি। এই রহম থেকেই এসেছে রোহিঙ্গা। তবে,ওখানকার রাজসভার বাংলা সাহিত্যের লেখকরা ঐ রাজ্যকে রোসাং বা রোসাঙ্গ রাজ্য হিসাবে উল্লেখ করেছেন। তবে ইতিহাস এটা জানায় যে, ১৪৩০ থেকে ১৭৮৪ সাল পর্যন্ত ২২ হাজার বর্গমাইল আয়তনের রোহিঙ্গা স্বাধীন রাজ্য ছিল।

মিয়ানমারের রাজা বোদাওফায়া এ রাজ্য দখল করার পর বৌদ্ধ আধিপত্য শুরু হয়। এক সময়ে ব্রিটিশদের দখলে আসে এ ভূখণ্ড। তখন বড় ধরনের ভুল করে তারা এবং এটা ইচ্ছাকৃত কিনা, সে প্রশ্ন জ্বলন্ত। তারা মিয়ানমারের ১৩৯টি জাতিগোষ্ঠীর তালিকা প্রস্তুত করে। কিন্তু তার মধ্যে রোহিঙ্গাদের নাম অন্তর্ভুক্ত ছিল না। এ ধরনের বহু ভূল করে গেছে ব্রিটিশ শাসকরা। ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি মিয়ানমার স্বাধীনতা অর্জন করে এবং বহুদলীয় গণতন্ত্রের পথে যাত্রা শুরু হয়। সে সময়ে পার্লামেন্টে রোহিঙ্গাদের প্রতিনিধিত্ব ছিল। এ জনগোষ্ঠীর কয়েকজন পদস্থ সরকারি দায়িত্বও পালন করেন। কিন্তু ১৯৬২ সালে জেনারেল নে উইন সামরিক অভ্যুত্থান ঘটিয়ে রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করলে মিয়ানমারের যাত্রাপথ ভিন্ন খাতে প্রবাহিত হতে শুরু করে। রোহিঙ্গাদের জন্য শুরু হয় দুর্ভোগের নতুন অধ্যায়।

সামরিক জান্তা তাদের বিদেশি হিসেবে চিহ্নিত করে। তাদের নাগরিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়। ভোটাধিকার কেড়ে নেওয়া হয়। ধর্মীয়ভাবেও অত্যাচার করা হতে থাকে। নামাজ আদায়ে বাধা দেওয়া হয়। হত্যা-ধর্ষণ হয়ে পড়ে নিয়মিত ঘটনা। সম্পত্তি জোর করে কেড়ে নেওয়া হয়। বাধ্যতামূলক শ্রমে নিয়োজিত করা হতে থাকে। তাদের শিক্ষা-স্বাস্থ্যসেবার সুযোগ নেই। বিয়ে করার অনুমতি নেই। সন্তান হলে নিবন্ধন নেই। জাতিগত পরিচয় প্রকাশ করতে দেওয়া হয় না। সংখ্যা যাতে না বাড়ে, সে জন্য আরোপিত হয় একের পর এক বিধিনিষেধ।
মিয়ানমারের মূল ভূখণ্ডের অনেকের কাছেই রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী ‘কালা’ নামে পরিচিত। বাঙালিদেরও তারা ‘কালা’ বলে। ভারতীয়দেরও একই পরিচিতি। এ পরিচয়ে প্রকাশ পায় সীমাহীন ঘৃণা।
ভাষা
মায়ানমারের আরাকান রাজ্যের (রাখাইন) রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর আধুনিক লিখিত ভাষাই হল রোহিঙ্গা ভাষা। এটি ইন্দো-ইউরোপীয়ান ভাষাগোষ্ঠীর অন্তর্গত যার সাথে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ভাষার মিল রয়েছে। রোহিঙ্গা গবেষকগণ আরবি, হানিফি, উর্দু, রোমান এবং বার্মিজ স্ক্রীপ্ট ব্যবহার করে সফলতার সাথে রোহিঙ্গা ভাষা লিখতে সক্ষম হয়েছেন। হানিফি হচ্ছে নতন তৈরি করা স্ক্রীপ্ট যা আরবি এবং তার সাথে চারটি বর্ণ (ল্যাটিন এবং বার্মিজ) সংযোগে সৃষ্ট।
সম্প্রতি একটি ল্যাটিন স্ক্রীপ্টের উদ্ভাবন হয়েছে যা ২৬টি ইংরেজি বর্ণ এবং অতিরিক্ত ২টি ল্যাটিন বর্ণ, Ç (তাড়নজাত R -এর জন্য) এবং Ñ (নাসিকা ধ্বনি-র জন্য) সংযোগে সৃষ্ট। রোহিঙ্গা ধ্বনি সঠিকভাবে বোঝার জন্য ৫টি স্বরধ্বনি (áéíóú) ব্যবহার করা হচ্ছে। এটি আই.এস.ও দ্বারা স্বীকৃত।
ইতিহাস
অষ্টম শতাব্দীতে আরবদের আগমনের মধ্য দিয়ে আরাকানে মুসলমানদের বসবাস শুরু হয়। আরব বংশোদ্ভূত এই জনগোষ্ঠী মায়্যু সীমান্তবর্তী অঞ্চলের (বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বিভাগের নিকট) চেয়ে মধ্য আরাকানের নিকটবর্তী ম্রক-ইউ এবং কাইয়্যুকতাও শহরতলীতেই বসবাস করতে পছন্দ করতো। এই অঞ্চলের বসবাসরত মুসলিম জনপদই পরবর্তীকালে রোহিঙ্গা নামে পরিচিতি লাভ করে।
ম্রক-ইউ রাজ্য
ম্রক-ইউ রাজ্যের সম্রাট নারামেখলার (১৪৩০-১৪৩৪) শাসনকালে বাঙ্গালীদের আরাকানের বসবাসের প্রমাণ পাওয়া যায়। ২৪ বছর বাংলায় নির্বাসিত থাকার পরে সম্রাট বাংলার সুলতানের সামরিক সহায়তায় পুনরায় আরাকানের সিংহাসনে আরোহন করতে সক্ষম হন। যে সব বাঙ্গালী সম্রাটের সাথে এসেছিল তারা আরাকানে বসবাস করতে শুরু করে।

সম্রাট নারামেখলা বাংলার সুলতানের দেওয়া কিছু অঞ্চল ও আরাকানের ওপর সার্বভৌমত্ব অর্জন করে। সম্রাট নারামেখলা পরবর্তীতে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন এবং বাংলার প্রতি কৃ্তজ্ঞতা স্বরূপ আরাকানে বাংলার ইসলামী স্বর্ণমূদ্রা চালু করেন। পরবর্তীতে নারামেখলা নতুন মূদ্রা চালু করেন যার একপাশে ছিল বার্মিজ বর্ণ এবং অপরপাশে ছিল ফার্সী বর্ণ। বাংলার প্রতি আরাকানের কৃ্তজ্ঞতা ছিল খুবই অল্প সময়ের জন্য।

১৪৩৩ সালে সুলতান জালালুদ্দিন মুহাম্মদ শাহের মৃত্যু হলে সম্রাট নারামেখলার উত্তরাধিকারীরা ১৪৩৭ সালে রামু এবং ১৪৫৯ সালে চট্টগ্রাম দখল করে নেয়। ১৬৬৬ সাল পর্যন্ত চট্টগ্রাম আরাকানের দখলে ছিল।বাংলার সুলতানদের কাছ থেকে স্বাধীনতা অর্জনের পরেও আরাকানের রাজাগণ মুসলিম রীতিনীতি বজায় রেখে চলে। বৌদ্ধ রাজাগণ নিজেদেরকে বাংলার সুলতানদের সাথে তুলনা করতো এবং মুঘলদের মতোই জীবন যাপন করতো। তারা মুসলিমদেরকেও রাজদরবারের গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়োগ দিত।

১৭ শতকের দিকে আরাকানে বাঙ্গালী মুসলিমদের সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে থাকে। তারা আরাকানের বিভিন্ন কর্ম ক্ষেত্রে কাজ করতো। যেহেতু রাজাগণ বৌদ্ধ হওয়ার পরেও বাংলার সুলতানদের রীতিনীতি অনুযায়ীই রাজ্য পরিচালনা করতো, তাই আরাকানের রাজদরবারে বাংলা, ফার্সী এবং আরবি ভাষার হস্তলিপিকরদের মধ্যে অনেকেই ছিল বাঙ্গালী। কামেইন বা কামান নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠী যারা মায়ানমার সরকারের নৃতাত্ত্বিক জাতিসত্ত্বার মর্যাদা পেয়েছে তারা আরাকানের মুসলিম জনগোষ্ঠীরই একটা অংশ ছিল।
বার্মিজদের দখল
১৭৮৫ সালে বার্মিজরা আরাকান দখল করে। এর পরে ১৭৯৯ সালে পঁয়ত্রিশ হাজারেরও বেশি মানুষ বার্মিজদের গ্রেফতার এড়াতে এবং আশ্রয়ের নিমিত্তে আরাকান থেকে নিকটবর্তী চট্টগ্রাম অঞ্চলে চলে আসে। বার্মার শোসকেরা আরাকানের হাজার হাজার মানুষকে হত্যা করে এবং একটা বড় অংশকে আরাকান থেকে বিতাড়িত করে মধ্য বার্মায় পাঠায়। যখন ব্রিটিশরা আরাকান দখল করে তখন যেন এটি ছিল একটি মৃত্যুপূরী। ১৭৯৯ সালে প্রকাশিত “বার্মা সাম্রাজ্য”তে ব্রিটিশ ফ্রাঞ্চিজ বুচানন-হ্যামিল্টন উল্লেখ করেন, “মুহাম্মদ(সঃ) – এর অনুসারীরা”, যারা অনেকদিন ধরে আরাকানে বাস করছে, তাদেরকে “রুইঙ্গা” বা “আরাকানের অধিবাসী” বলা হয়।
ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসন
কৃষিকাজের জন্য আরাকানের কম জন অধ্যুষিত এবং উর্বর উপত্যকায় আশপাশের এলাকা থেকে বাঙ্গালী অধিবাসীদের অভিবাসন করার নীতি গ্রহণ করেছিল ব্রিটিশরা। ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি বাংলাকে আরাকান পর্যন্ত বিস্তৃত করেছিল। আরাকান ও বাংলার মাঝে কোন আন্তর্জাতিক সীমারেখা ছিল না এবং এক অঞ্চল থেকে আরেক অঞ্চলে যাওয়ার ব্যাপারে কোন বিধি-নিষেধও ছিল না। ১৯ শতকে, হাজার হাজার বাঙ্গালী কাজের সন্ধানে চট্টগ্রাম অঞ্চল থেকে আরাকানে গিয়ে বসতি গড়েছিল। এছাড়াও, হাজার হাজার রাখাইন আরাকান থেকে বাংলায় চলে এসেছিল।
১৮৯১ সালে ব্রিটিশদের করা এক আদমশুমারীতে দেখা যায়, আরাকানে তখন ৫৮,২৫৫ জন মুসলমান ছিল। ১৯১১ সালে এ সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ১৭৮,৬৪৭ জন হয়। অভিবাসনের মূল উদ্দেশ্য ছিল ব্রিটিশ বাংলার সস্তা শ্রম যা আরাকানের ধান ক্ষেতের কাজে লাগত। বাংলার এই অধিবাসীরা (বেশিরভাগই ছিল চট্টগ্রাম অঞ্চলের) মূলত আরাকানের দক্ষিণেই অভিবাসিত হয়েছিল। এটা নিশ্চিত যে, ভারতের এই অভিবাসন প্রক্রিয়া ছিল পুরো অঞ্চল জুড়ে, শুধু আরাকানেই নয়।

ঐতিহাসিক থান্ট মিন্ট-ইউ লিখেছেন: “বিংশ শতাব্দীর শুরুতে, বার্মায় আসা ভারতীয়দের সংখ্যা কোনভাবেই আড়াই লক্ষের কম নয়। এই সংখ্যা ১৯২৭ সাল পর্যন্ত বাড়তেই থাকে এবং অভিবাসীদের সংখ্যা হয় ৪৮০,০০০ জন, রেঙ্গুন নিউ ইয়র্ককেও অতিক্রম করে বিশ্বের বড় অভিবাসন বন্দর হিসেবে। মোট অভিবাসীদের সংখ্যা ছিল প্রায় ১.৩ কোটি (১৩ মিলিয়ন)।” তখন বার্মার রেঙ্গুন, আকিয়াব, বেসিন, প্যাথিন এবং মৌমেইনের মত অধিকাংশ বড় শহরগুলোতে ভারতীয় অভিবাসীরা ছিল সংখ্যাগরিষ্ঠ। ব্রিটিশ শাসনে বার্মিজরা অসহায়ত্ব বোধ করত এবং দাঙ্গা-হাঙ্গামার মাধ্যমে তারা অভিবাসীদের উপর প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করত।

অভিবাসনের ফলে সংঘাত মূলত আরাকানেই ছিল সবচেয়ে প্রকট। ১৯৩৯ সালে, রোহিঙ্গা মুসলিম ও রাখাইন বৌদ্ধদের মধ্যকার দীর্ঘ শত্রুতার অবসানের জন্য ব্রিটিশ প্রশাসন জেমস ইস্টার এবং তিন তুতের দ্বারা একটি বিশেষ অনুসন্ধান কমিশন গঠন করে। কমিশন অনুসন্ধান শেষে সীমান্ত বন্ধ করার সুপারিশ করে, এর মধ্যে শুরু হয় ২য় বিশ্ব যুদ্ধ এবং এর পরে ব্রিটিশরা আরাকান ছেড়ে চলে যায়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালীন জাপানীদের দখল

রোহিঙ্গা গণহত্যা
১৯৪২ সালের ২৮শে মার্চ, মায়ানমারের মিনবিয়া এবং ম্রক-ইউ শহরে রাখাইন জাতীয়তাবাদী এবং কারেইনপন্থীরা প্রায় ৫,০০০ মুসলমানকে হত্যা করে। ইতোমধ্যে, রাখাইন রাজ্যের উত্তরাঞ্চলে প্রায় ২০,০০০ মুসলমানকে হত্যা করা হয়। এতে উপ-কমিশনার ইউ য়ু কিয়াও খায়াং-ও নিহত হন যিনি দাঙ্গা নিয়ণ্ত্রনের চেষ্টা করছিলেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়, জাপানীরা ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসনের অধীনস্হ বার্মায় আক্রমণ করে। ব্রিটিশ শক্তি পরাজিত হয়ে ক্ষমতা ছেড়ে চলে যায়। এর ফলে ব্যাপক সংঘর্ষ ছড়িয়ে পরে। এর মধ্যে বৌদ্ধ রাখাইন এবং মুসলিম রোহিঙ্গাদের মধ্যকার সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ছিল উল্লেখযোগ্য। এই সময়ে ব্রিটিশপন্হীদের সাথে বার্মার জাতীয়তাবাদীদেরও সংঘর্ষ হয়। জাপানীদের আক্রমণের সময় উত্তর আরাকানের ব্রিটিশপন্হী অস্ত্রধারী মুসলমানদের দল বাফার জোন সৃষ্টি করে। রোহিঙ্গারা যুদ্ধের সময় মিত্রপক্ষকে সমর্থন করেছিল এবং জাপানী শক্তির বিরোধিতা করেছিল, পর্যবেক্ষণে সাহায্য করেছিল মিত্রশক্তিকে।

জাপানীরা হাজার হাজার রোহিঙ্গাদের নির্যাতন, ধর্ষণ এবং হত্যা করেছিল। এই সময়ে প্রায় ২২,০০০ রোহিঙ্গা সংঘর্ষ এড়াতে সীমান্ত অতিক্রম করে বাংলায় চলে গিয়েছিল।
জাপানী এবং বার্মাদের দ্বারা বারংবার গণহত্যার শিকার হয়ে প্রায় ৪০,০০০ রোহিঙ্গা স্হায়ীভাবে চট্টগ্রামে চলে আসে।

যুদ্ধ পরবর্তী অবস্থা
১৯৪৭ সালে রোহিঙ্গারা মুজাহিদ পার্টি গঠন করে যারা জিহাদি আন্দোলন সমর্থন করতো। মুজাহিদ পার্টির লক্ষ্য ছিল আরাকানে একটি স্বাধীন মুসলিম রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করা। তারা জেনারেল নে উইনের নেতৃত্বে ১৯৬২ সালের সামরিক অভ্যুত্থানের পূর্ব পর্যন্ত অত্যন্ত সক্রিয় ছিল। নে উইন তাদেরকে দমনের জন্য দুই দশকব্যাপী সামরিক অভিযান পরিচালনা করেন। উল্লেখযোগ্য একটি অভিযান ছিল “কিং ড্রাগন অপারেশন” যা ১৯৭৮ সালে পরিচালিত হয়। এর ফলে অনেক মুসলমান প্রতিবেশী বাংলাদেশে পালিয়ে আসে এবং শরনার্থী হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। বাংলাদেশ ছাড়াও উল্লেখযোগ্য সংখ্যার রোহিঙ্গারা পাকিস্তানের করাচীতে চলে যায় (দেখুন পাকিস্তানে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী)। এরপরও, বার্মার মুজাহিদরা আরাকানের দূর্গম এলাকায় এখনও সক্রিয় আছে।
বার্মিজ জান্তা
প্রায় অর্ধ শতাব্দী ধরে বার্মা শাসন করছে মায়ানমারের সামরিক জান্তা। ক্ষমতা কুক্ষিগত করার জন্য এরা বার্মিজ জাতীয়তাবাদ এবং থেরাভেদা বৌদ্ধ ধর্মীয় মতবাদ ব্যাপকভাবে ব্যবহার করে থাকে। আর এর ফলেই তারা রোহিঙ্গা, চীনা জনগোষ্ঠী যেমন – কোকাং, পানথাইদের(চীনা মুসলিম) মত ক্ষুদ্র জাতিসত্ত্বাকে ব্যপকভাবে নির্যাতন করে থাকে। কিছু নব্য গণতন্ত্রপন্থী নেতা যারা বার্মার প্রধান জনগোষ্ঠী থেকে এসেছেন তারাও রোহিঙ্গাদের বার্মার জনগণ হিসেবে স্বীকার করেন না।
বার্মার সরকার রোহিঙ্গা ও চীনা জনগোষ্ঠীর মত ক্ষুদ্র জাতিসত্ত্বাদের বিরুদ্ধে দাঙ্গার উসকানি দিয়ে থাকে এবং এ কাজ তারা অতি সফলতার সাথেই করে যাচ্ছে।
রাখাইনে ২০১২ সালের দাঙ্গা
রাখাইনে ২০১২ সালের দাঙ্গা হচ্ছে মায়ানমারের উত্তরাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা মুসলিম ও বোদ্ধ রাখাইনদের মধ্যে চলমান সংঘর্ষের ঘটনাপ্রবাহ। দাঙ্গা শুরু হয় জাতিগত কোন্দলকে কেন্দ্র করে এবং উভয় পক্ষই এতে জড়িত হয়ে পরে।
ধর্ম 
রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী মূলত ইসলাম ধর্মের অনুসারী। যেহেতু বার্মা সরকার তাদের পড়াশুনার সুযোগ দেয় না, তাই অনেকেই মোলিক ইসলামী শিক্ষাকেই একমাত্র পড়াশুনার বিষয় হিসেবে গ্রহণ করেছে। অধিকাংশ গ্রামেই মসজিদ এবং মাদ্রাসা (ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান) রয়েছে। ঐতিহ্যগতভাবে, পুরুষরা জামাতে এবং মহিলারা বাড়িতেই প্রার্থণা করে থাকে।
মানবাধিকার লঙ্ঘন ও শরণার্থী 
রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে বলা হয় “বিশ্বের সবচেয়ে কম প্রত্যাশিত জনপদ” এবং “বিশ্বের অন্যতম নিগৃহীত সংখ্যালঘু”। ১৯৮২ সালের নাগরিকত্ব আইনের ফলে তারা নাগরিকত্ব থেকে বঞ্চিত হন। তারা সরকারি অনুমতি ছাড়া ভ্রমণ করতে পারে না, জমির মালিক হতে পারে না এবং দুইটির বেশি সন্তান না নেওয়ার অঙ্গীকারনামায় স্বাক্ষর করতে হয়।
অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের অনুসারে, ১৯৭৮ সাল থেকে মায়ানমারের মুসলিম রোহিঙ্গারা মানবাধিকার লংঘনের শিকার হচ্ছে এবং তারা প্রতিবেশী বাংলাদেশে পালিয়ে আসতে বাধ্য হচ্ছে। ফলে:

রোহিঙ্গাদের চলাচলের স্বাধীনতা ব্যপকভাবে নিয়ণ্ত্রিত এবং তাদের অধিকাংশের বার্মার নাগরিকত্ব বাতিল করা হয়েছে। তাদের উপর বিভিন্ন রকম অন্যায় ও অবৈধ কর চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাদের জমি জবর-দখল করা, জোর-পূর্বক উচ্ছেদ করা, ঘর-বাড়ি ধ্বংস করা এবং বিবাহের উপর অর্থনৈতিক অবরোধ চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে। যদিও উত্তর রাখাইন রাজ্যে গত দশকে বাধ্যতামূলক শ্রমিকের কাজ করা কমেছে তারপরও রোহিঙ্গাদের রাস্তার কাজে ও সেনা ক্যাম্পে বাধ্যতামূলক শ্রমিকের কাজ করতে হচ্ছে।
১৯৭৮ সালে মায়ানমার সেনাবাহিনীর ‘নাগামান’ (‘ড্রাগন রাজা’) অভিযানের ফলে প্রায় দুই লক্ষ (২০০,০০০) রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। সরকারিভাবে এই অভিযান ছিল প্রত্যেক নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং যে সব বিদেশী অবৈধভাবে মায়ানমারে বসবাস করছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা। এই সেনা অভিযান সরাসরি বেসামরিক রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে চলছিল এবং ফলে ব্যাপক হত্যা, ধর্ষণ ও মসজিদ ধ্বংসের ঘটনা ঘটে।
১৯৯১-৯২ সালে একটি নতুন দাঙ্গায় প্রায় আড়াই লক্ষ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে চলে আসে। তারা জানায় রোহিঙ্গাদের বার্মায় বাধ্যতামূলক শ্রম প্রদান করতে হয়। এছাড়া হত্যা, নির্যাতন ও ধর্ষণের স্বীকার হতে হয়। রোহিঙ্গাদের কোনো প্রকার পারিশ্রমিক ছাড়াই কাজ করতে হত।
২০০৫ সালে, জাতিসংঘ শরণার্থীবিষয়ক হাইকমিশনার রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ থেকে ফিরিয়ে নেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করে, কিন্তু রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে বিভিন্ন ধরণের মানবাধিকার লংঘনের অভিযোগে এই উদ্যোগ ভেস্তে যায়।

 

তথ্যটি ডাউনলোড কখনে                 ক্লিক করুন এখনে

logo-opinion2-1-copy

 

 CLICK HERE FOR MORE

BD Govt Job Circular Official Facebook Page

Please connect all time with us on Facebook : https://www.facebook.com/bdgovtjobspreparation/

Don’t Forget to like our facebook page Please.

প্রিয় বন্ধু, ভাই ও বোনের জন্য ফেসবুক ও টুইটারে শেয়ার করুণ আমাদের পেজটি।

Thanks you

 

গুরুত্বপূর্ণ সাম্প্রতিক সাধারণ জ্ঞান .

গুরুত্বপূর্ণ সাম্প্রতিক সাধারণ জ্ঞান | মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ২০১৬

 

 

untitled-1-copy

সাধারণ জ্ঞান থেকে যে কোন চাকরি বা বিশ্ববিদ্যলয়ের ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্ন আসেই। বিশেষ করে সাম্প্রতিক বিশ্ব বা সাম্প্রতিক ঘটনাবলী থেকে সবথেকে বেশি প্রশ্ন আসে। এই জন্যে আমাদের কে এই বিষয় টিকে গুরুত্বের সাথে নিতে হয়।  শিক্ষার্থীদের সুবিধার জন্য আমরা নিয়মিত সাধারণ জ্ঞান সম্পর্কে পোস্ট দিয়ে যাচ্ছি। আশা করি আপনাদের অনেক উপকারে আসবে। যদি কারও সামান্য উপকারে আসে তাহলেই bdgovtjobcircular.com কর্তৃপক্ষের এই পরিশ্রম সার্থক। 

মনোযোগ দিন

১। ডোনাল্ড ট্রাম্প কতটি ইলেকট্ররাল কলেজের লাভ করেছেন ? = ২৮৯টি ।

২। মুসলিম এইড” কোন দেশ ভিত্তিক দাতা সংস্থা? উঃ ব্রিটেন

৩। হিলারী ক্লিনটন কতটি ইলেকট্ররাল লাভ করেছেন ? =২১৮টি ।

৪।প্রেসিডেন্ট হতে কতটি ইলেকট্ররাল ভোট লাগে ? = ২৭০টি

৫। ইলেকট্রলেট রা কবে ভোট দিবেন ? = ১৯ ডিসেম্বর , ২০১৬ ।

৬। কবে ডোনাল্ট ট্রাম্প দায়িত্ব নেবেন ? = ২০জানুয়ারী , ২০১৭ ।

৭। ডোনাল্ট ট্রাম্প আমেরিকার কততম প্রেসিডেন্ট হবে ন? = ৪৫তম ।

৮। ২০১৬ সালের আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচন কত তম ? =৫৮তম ।

৯। ডোনাল্ট ট্র্যাম্প প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নিলে ফাস্ট লেডি হবেন কে ? = মেলানিয়া ট্রাম্প

১০ । ডোনাল্ট ট্র্যাম্প প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নিলে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট হবেন কে? = মাইক পেন্স

১১। যুক্তরাষ্ট্রের কোন রাজ্যে ইলেকট্ররাল কলেজের সংখ্যা বেশি ? = ক্যালিফোর্নিয়া ( ৫৫টি । ) .

১২। ব্যাটেলগ্রাউন্ড স্টেট’ কতটি ? = ৮টি । ফ্লোরিডা,উইসকনসিন,পেনসিলভানিয়া , ওহায়ো , মিশিগান , নর্থ ক্যারোলিনা (), ভার্জিনিয়া এবং মিনেসোটা । .

১৩। আমেরিকায় প্রথম প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হয়েছে কবে? = ১৭৮৮

১৪। প্রশ্ন : বর্ণবাদী দৃষ্টিভঙ্গির অভিযোগে আফ্রিকার কোন কোন দেশ আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি) থেকে সদস্য পদ প্রত্যাহার করার ঘোষণা দিয়েছে? উত্তর : বর্ণবাদী দৃষ্টিভঙ্গির অভিযোগে দক্ষিণ আফ্রিকা, বুরুন্ডি ও গাম্বিয়া আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি) থেকে সদস্য পদ প্রত্যাহার করার ঘোষণা দিয়েছে।

১৫। প্রশ্ন : ২০১৬ সালে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন কে? উত্তর : ২০১৬ সালে সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পান ৭৫ বছর বয়সী রক, ফোক, ফোক-রক, আরবান ফোকের কিংবদন্তি গায়ক বব ডিলান।

১৬। প্রশ্ন : সম্প্রতি পারমাণবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম দ্রুতগতির ইঞ্জিনবিহীন ‘ওয়্যারহেড’ পরীক্ষা করেছে কোন দেশ? উত্তর : পারমাণবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম দ্রুতগতির ইঞ্জিনবিহীন ‘ওয়্যারহেড’-৪২০২ পরীক্ষা চালিয়েছে রাশিয়া।

১৭। প্রশ্ন : সম্প্রতি চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে নতুন কী উপাধি দেয়া হয়েছে? উত্তর : চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে সম্প্রতি কোর অব দ্য চাইনিজ কমিউনিটি পার্ট উপাধি দেয়া হয়েছে।

১৮। প্রশ্ন : ২০১৬ সালে বুকার পেয়েছেন কে? উত্তর : যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম লেখক হিসেবে ম্যান বুকার পুরস্কার পেয়েছেন পল বিটি। পল বিটি তার ব্যঙ্গাত্মক উপন্যাস দ্য সেলআউটের

পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করুন এখান থেকে 

ওয়ার্ড ফাইল ডাউনলোড করুন এখান থেকে 

 

 CLICK HERE FOR MORE

BD Govt Job Circular Official Facebook Page

Please connect all time with us on Facebook : https://www.facebook.com/bdgovtjobspreparation/

Don’t Forget to like our facebook page Please.

প্রিয় বন্ধু, ভাই ও বোনের জন্য ফেসবুক ও টুইটারে শেয়ার করুণ আমাদের পেজটি।

Thanks you

 

পৃথিবী বদলের চুক্তি -২ | পৃথিবীর প্রথম শান্তিচুক্তি

পৃথিবী বদলের চুক্তি -২: পৃথিবীর প্রথম শান্তিচুক্তি | সুজন দেবনাথ

Treaty চুক্তি

সমর বিশেষজ্ঞ বা যুদ্ধ-পণ্ডিতেরা বলেন, মানুষের ইতিহাস নাকি যুদ্ধ, বিরোধ আর অশান্তির ইতিহাস।  অশান্তির চক্রব্যূহেই নাকি মানব সভ্যতার আবর্তন।
তবে তাঁরা যাই বলুক – এই অশান্তির চক্রব্যূহ ছিন্ন করে শান্তি প্রতিষ্ঠায় মানুষের চেষ্টা অনেক দিনের। আনুষ্ঠানিকভাবে শান্তিচুক্তির ইতিহাসই প্রায় ৩২০০ বছরের। খ্রিস্টের জন্মের ১২৫৯ বছর আগের। সেই সময় মিশরের ফারাও দ্বিতীয় রামেসেস (Ramesses-II) এবং হিতিতি রাজা তৃতীয় হাতুসিলির মধ্যে হয়েছিল চুক্তি। ইতিহাসের সবচেয়ে পুরুনো মৈত্রীচুক্তি।
জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সভাকক্ষের প্রবেশ দেয়ালে ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে এই চুক্তির কপি। যেন বিশ্বনেতারা শান্তি আলোচনায় যাবার পথে দেখতে পান, আজ থেকে প্রায় ৩২০০ বছর আগে দুই রাজা শান্তিরক্ষায় চুক্তি করতে পেরেছিল। তাহলে সভ্যতার এই যুগে তাঁরা কেন পারবেন না?

মিশরীয় সভ্যতা তখন সর্বোচ্চ চূড়ায়। সিংহাসনে তখন বিখ্যাত ফারাও দ্বিতীয় রামেসেস। বিশাল ছিল তাঁর সাম্রাজ্য। বর্তমান সিরিয়া, লেবানন, ইসরায়েলের অংশ বিশেষ ছাড়িয়ে গিয়েছিল তাঁর রাজ্যের পরিধি।

অন্যদিকে খ্রিস্টপূর্ব ১৫০০ সালের দিকে হিতিতিরা শক্তি অর্জন করতে থাকে। তাঁরা মিশরের ফারাওদের কাছ থেকে বর্তমান সিরিয়া, লেবাননের কিছু অংশ ছিনিয়ে নেয়। এই ভুমি দখল আর পাল্টা-দখল নিয়ে ফারাওদের সাথে হিতিতিদের যুদ্ধ ছিল প্রায় নৈমিত্তিক ঘটনা। খ্রিস্টপূর্ব ১২৭৪ সালে ফারাও রামেসেসের সাথে হিতিতিদের এক বিশাল যুদ্ধ হয়। এতে রামেসেস জয়ী হলেও, হিতিতিরা একেবারে নিশ্চিহ্ন হয়ে যায়নি। তাঁরা সাধ্যমত চেষ্টা করছিল, হারানো রাজ্য ফিরে পেতে। তাই ছোট ছোট খণ্ডযুদ্ধ লেগে ছিল তার পরের প্রায় ১৫ বছর। খ্রিস্টপূর্ব ১২৬৭ সালে হিতিতিদের সিংহাসনের প্রকৃত উত্তরাধিকারী রাজপুত্রকে হত্যা করে রাজা হন হাতুসিলি। ভাইয়ের ছেলেকে হত্যা করায় রাজা হসেবে তাঁর বৈধতা ছিল প্রশ্নবিদ্ধ। সবাই তাঁর কর্তৃত্ব মেনে নেয়নি। এ অবস্থায় প্রতিবেশী রাজারা তাঁকে স্বীকৃতি দিলে তাঁর জন্য রাজা হিসেবে টিকে যাওয়া সহজ হয়। তাই তিনি ফারাওয়ের সাথে শান্তি স্থাপনের একটা উপায় খুঁজছিলেন।
আবার ওই অঞ্চলেই এসিরীয়রা প্রতিষ্ঠা করছিল একটি শক্তিশালী রাজত্ব। তাঁরা যে কোন সময় আক্রমন করতে পারে হিতিতিদের। এই এসিরীয়িদের থেকে একই রকম ভয় ছিল মিশরীয়দেরও। সম্রাট রামেসেসও এসিরীয়দের থেকে ভীত ছিল। তাই রামেসেসও হিতিতিদের সাথে শান্তি চাইলেন। এভাবে দুইপক্ষই একটা উপায় খুঁজছিল সম্মানজনক সন্ধির।
সেই উদ্দেশ্যে হিতিতি রাজা হাতুসিলি একজন দূত পাঠালেন রামেসেসের কাছে। রামেসেস রাজি হলেন। স্বাক্ষরিত হলো চুক্তি। পৃথিবীর ইতিহাসের প্রথম মৈত্রীচুক্তি। মিশরীয়-হিতিতি শান্তিচুক্তি। খ্রিস্টের জন্মের ১২৫৯ বছর আগে। আজ থেকে প্রায় ৩২০০ বছর পূর্বে। তখনও পৃথিবীতে কাগজ আসে নি। তাই দুইপক্ষ পাথরের উপর খোদাই করে লিখল সেই চুক্তি।
মিশরের মন্দিরের গায়ে লিখা আছে এই চুক্তির মিশরীয় ভার্সন। আর হিতিতিদের ভার্সন পাওয়া যায় ১৯০৬ সালে মাটি খুঁড়ে হাত্তুসা নগরী আবিষ্কারের পর। এই হাত্তুসা নগরী বর্তমান তুরস্কে। তুরস্ক সরকার জাতিসংঘকে এই চুক্তির কপি দান করে। আর জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সভাকক্ষের ঠিক সামনে দেয়ালে ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে এই চুক্তির কপি। মজার বিষয় হচ্ছে এই চুক্তি যে অঞ্চল নিয়ে সেটি বর্তমান প্যালেস্টাইন-ইসরায়েল ভূখণ্ড। আজ থেকে ৩২০০ বছর আগে এখানে শান্তিপ্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হয়েছিল। আর এখন সম্ভব হচ্ছে না।

লেখকঃ  Sujan Debnath
Second Secretary at Bangladesh Embassy in Athens – বাংলাদেশ দূতাবাস, এথেন্স

সুজন দেবনাথ (অব্যয় অনিন্দ্য)

Question and Answer from International Affairs

bdgovt-jobscircular-international-affairs

 

  • Name of the European common currencyEuro

  • OIC is established in – 1969

  • The first postage stamp in the world – Penny Black

  • Pearl Harbor, where the American Pacific Fleet was stationed, was attacked by Japanese in – 1941

  • The second largest Muslim Country in the world  is – Pakistan

  • The most importer country in the world – the USA

  • The name of the organization working worldwide  against corruption – Transparency International

  • The world’s largest nuclear power station – Kashiwazaki Kariwa(Japan)

  • SAARC Agriculture Information Centre (SAIC) is situated in – Dhaka

  • Largest city of IndiaMumbai

  • Reuters is a – News Agency

  • The largest tea exporter country  in the worldSri Lanka

  • The Headquarters of Islamic Development Bank (IDB) – Jeddah

  • Number of Permanent members of UN Security Council is – 5

  • Previous name of JapanNippon

  • “Line of Control” – is situated between – India and Pakistan

  • Elaboration of IBSA is – India, Brazil and South Africa

  • Wall Street is – The Stock Exchange Market in New York.

  • The name of Indonesian CurrencyRupiah

  • The World Bank is an – International Financial Institution

  • IDA, Organization of the World Bank is known as the – “Soft Loan Window”

বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়বলী । সাম্প্রতিক তথ্য SEP 2016

বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়বলীর সাম্প্রতিক তথ্য ২০১৫ থেকে ২০১৬ পর্ব ০৪

 

বাংলাদেশের কোন কয়লা খনিতে আহরনযোগ্য গ্যাস আর নেই?
Answer : জামালগঞ্জ।
Hints : জামালগঞ্জ কয়লখনি এখ নপর্যন্ত আবিষ্কৃত দেশের সবচেয়ে বড় ও সবচেয়ে বেশী গভীর, আর এই খনিতেই আহরণযোগ্য গ্যাস আর নেই। খনিটিতে দুটি অনুসন্ধান কূপ খননের ফল বিশ্লেষণ করে এই সিদ্ধান্তে পৌছেছেন বিশেষজ্ঞরা।

OPEC-শীর্ষ সম্মেলন-২০১৬ কোথায় অনুষ্ঠিত হয়?
Answer: কাতারে।
Hints: OPEC= Organization of the Petroleum Exporting Countries-বর্তমানে ওপেকের সদস্য ১৩টি দেশ- ইন্দোনেশিয়া, অ্যাঙ্গোলা, আলজেরিয়া, ইরাক, ইরান, ইকুয়েডর, ইউএই, কাতার, কুয়েত, নাইজেরিয়া, ভেনুজুয়োলা, লিবিয়া, সৌদি আরব।

ফাউন্ডারস অ্যাওয়ার্ড-২০১৬ পেয়েছেন কে?
Answer: মাদার তেরেসা।
Hints: যুক্তরাজ্যের সম্মানজনক মরণোত্তর ‘ফাউন্ডারস অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন কলকাতার মিশনারিজ অব চ্যারিটির প্রতিষ্ঠাতা মনবতাবাদী মাদার তেরেসা। তার পক্ষে গত ৮ এপ্রিল পুরষ্কার গ্রহণ করেন তার একমাত্র জবিত আত্মীয় নাতান আজি বোজাজিয়ু(৭২)।

পিএসসির নতুন চেয়ারম্যান কে?
Answer: মোহাম্মদ সাদিক।
Hints: বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশনের (পিএসসি) নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মোহাম্মদ সাদিক। অবসরোত্তর ছুটি (পিআরএল) ভোগরত অবস্থায় মোহাম্মদ সাদিক ২০১৪ সালের ২৭ অক্টোবর পিএসসি এর সদস্য হিসেবে নিয়োগ পান। বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের ১৯৮২ ব্যাচের কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাদিক নির্বাচন কমিশন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়সহ সরকারের বিভিন্ন পদে গুরুত্বপূর্ণ দ্বায়িত্ব পালন করেছেন।

ইউএনডিপির আঞ্চলিক মানব উন্নয়ন প্রতিবেদন অনুযয়ী বাংলদেশে কর্মক্ষম জনসংখ্যা-
Answer: ৬৬%।
Hints: ইউএনডিপির আঞ্চলিক মানব উন্নয়ন প্রতিবেদন অনুযয়ী বাংলদেশে কর্মক্ষম জনসংখ্যা-৬৬ শতাংশ। বাংলাদেশ এখন তরুণদের দেশ। দেশের ৪৯% মানুষের বয়স ২৪ বছর বা তার নিচে। বাংলাদেশে কর্মক্ষম মানুষ আছে ১০ কোটি ৫৬ লাখ, এটি মোট জনসংখ্যার ৬৬ শতাংশ।

লরিয়াস অ্যাওয়ার্ড-২০১৬ বর্ষসেরা নারী ক্রীড়াবিদ কে?
Answer: সেরেনা উইলিয়ামস।
Hints : যুক্তরাষ্ট্রের টেনিস তারকা সেরেনা উইলিয়ামস ২০১৬ সালের সেরা নারী ক্রীড়াবিদের পুরষ্কার জিতেছেন। সেরেনা এর আগে ২০৩ ও ২০১০ সালে এই পুরষ্কার জিতেছিলেন। (Laureus Sports Award) খেলাধুলার সবচেয়ে মর্যদাপূর্ণ পুরষ্কার। এই পুরষ্কার স্পোর্টস অস্কার নামে পরিচিত।

লরিয়াস অ্যাওয়ার্ড-২০১৬ বর্ষসেরা পুরুষ ক্রীড়াবিদ কে?
Answer: নোভাক জোকোভিচ।
Hints : সার্বিয়ান টেনিস তারকা নোভাক জোকোভিচ ২০১৬ সালের সেরা পুরুষ ক্রীড়াবিদের পুরষ্কার জিতেছেন। (L aureus Sports Award) খেলাধুলার সবচেয়ে মর্যদাপূর্ণ পুরষ্কার। এই পুরষ্কার স্পোর্টস অস্কার নামে পরিচিত।

জাতিসংঘের পনি বিষয়ক উচ্চ পর্যায়ের প্যানেলের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশের—————
Answer: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
Hints: জাতিসংঘের পনি বিষয়ক উচ্চ পর্যায়ের প্যানেলের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতিসংঘের মহাসচিব বান-কি-মুন ও বিশ্বব্যাংক গ্রুপের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম এ প্যানেল ঘোষণা করেন (২৪.০৪.২১৬)। জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি)-৬ বাস্তবায়নকে ত্বরান্বিত করার লক্ষে এ প্যানেল গঠন করা হয়েচে। (এসডিজি)-৬ মূল লক্ষ হচ্ছে, সবার জন্য পানি ও স্যানিটেশন সুবিধা এবং এর টেকসই ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করা।

বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম সূচক-২০১৬ শীর্ষে কোন দেশ?
Answer: ফিনল্যান্ড।
Hints: বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম সূচক (2016 World Press Freedom Index) বাংলাদেশের অবস্থান ১৪৪ তম। ১৮০টি দেশের গণমাধ্যম পর্যালোচনা করে এই সূচক করা হয়। সূচকে সবচেয়ে শীর্ষে ফিনল্যান্ড। এবং সূচকে সবচেয়ে নিচের দিকের দেশ ইরিত্রিয়া।

বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়বলীর সাম্প্রতিক তথ্য ২০১৫ থেকে ২০১৬ পর্ব ০৪

বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়বলীর সাম্প্রতিক তথ্য ২০১৫ থেকে ২০১৬ পর্ব ০৪

ও আই সির (Organization Of Islamic Cooparetion) ১৩ তম শীর্ষ সম্মেলন কোথায় অনুষ্ঠিত হয়?
Answer: ইস্তাম্বুলে।
Hints: ইসলামি সহযোগিতা সংস্থা বা ও আই সির (Organization Of Islamic Cooparetion) ১৩ তম শীর্ষ সম্মেলন ১৫ এপ্রিল, ২০১৬ তারিখে ইস্তাম্বুলে অনুষ্ঠিত হয়। মুসলিম বিশ্বে জনগণের স্বার্থ রক্ষা, নিরাপত্তা এবং শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ১৯৬৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ইসলামি সহযোগিতা সংস্থা বা ও আই সি (Organization Of Islamic Cooparetion) । তিন বছর পরপর এ সংস্থার শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ও আইসির সদস্য সংখ্যা ৫৭ টি।

লোহিত সাগরে সেতু নির্মাণ করবে কোন দুটি দেশ?
Answer: সৌদি-মিসর।
Hints: লোহিত সাগরে সেতু নির্মাণের ঘোষণা দিয়েচে সৌদি-আরবের বাদশাহ সালমান। সৌদি আরব ও মিসরের মধ্যে সংযোগ ঘটাতেই এ সেতু নির্মান করা হবে। সৌদি বাদশাহ সালমান এ ঘোষনা দেন। ২০ মাইল দীর্ঘ সেতুটির নাম হবে কিং সালমান বিন আবদেল আজিজ সেতু। দুই দশক ধরে আলোচনার পর এ সেতু নির্মানের ঘোষনা দেওয়া হলো।

IMF & World Bank এর বর্তমান সদস্য সংখ্যা কত?
Answer: ১৮৯।
Hints: আন্তর্জাতিক মুদ্রাতহবিল (IMF=Internatoinal Monetary Fund) এবং বিশ্বব্যাংকের ১৮৯ তম সদস্য হয়েছে নাউরু প্রজাতন্ত্র। দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরীয় একটি ক্ষুদ্র দ্বীপ রাষ্ট্র নাউরু প্রজাতন্ত্র। আইএমএফ এ যোগাদানের ফলে নাউরু প্রজাতন্ত্র আর্থিক সমার্থন, প্রযুক্তিগত সহয়তা, দুর্যোগ ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা সহয়তা পাবে।

প্রথম মার্কিন মন্ত্রী হিসেবে হিরোশিমা সফর করেন কে?
Answer: পরারাষ্ট্র মন্ত্রী জন কেরি।
Hints: ১৯৪৫ সালে যুক্তরষ্ট্রে আণবিক বোমা ফেলে জাপানের শহরটিকে ধ্বংস করার পর জন কেরিই সর্বোচ্চ মার্কিন নেতা যিনি প্রথমবার হিরোশিমা সফর করলেন।

বাংলদেশ ব্যাংকের ১১ তম গভার্ণর ফজলে কবির কত তারিখে নিযুক্ত হন?
Answer: ২০ মার্চ, ২০১৬।
Hints: ২০ মার্চ, ২০১৬ তারিখে বাংলদেশ ব্যাংকের ১১ তম গভার্ণর ফজলে কবিরকে নিযুক্ত করা হয়।

সম্প্রতি কোন দেশের প্রধানমন্ত্রী “পানামা পেপার্স” কেলেঙ্কারীর ঘটনায় পদত্যাগ করেছেন?
Answer: আইসল্যান্ডের।
Hints: আইসল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী (সিগমুন্ডওর ডেভিড গুনলাগসন) “পানামা পেপার্স” কেলেঙ্কারীর ঘটনায় পদত্যাগ করেছেন। সেদেশে এখন নতুন প্রধানমন্ত্রী (সিগুইডুর ইঙ্গি জোহানসন)।

প্রথম জিকা ভাইরাসের সন্ধান মেলে কবে?
Answer: ১৯৪৭ সালে।
Hints: পূর্ব আফ্রিকার দেশ উগান্ডার অতি পরিচিত জিকা (স্থানীয় ভাষায় ‘বাড়ন্ত’) বনাঞ্চলে ১৯৪৭ সালে প্রথম এ ভাইরাসের সন্ধান মেলে। এই কারণে এর নাম দেওয় হয় ঐ বনেরই নামে। সন্ধান পওয়ার সাতবছর পর নাইজেরিয়ায় প্রথম মানবদেহে এ ভাইরাসের সংক্রমণের তথ্য পাওয়া যায়। এর পওে তা ছড়িয়ে পড়ে পূর্ব এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরের দ্বীপগুলিতে। গত বছর ব্রাজিলে নতুন করে জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর খোঁজ মেলার পর মাত্র চার মাসের মধ্যেই তা ছড়িয়ে পড়ে বহু দেশে। এর বাহক এডিস এজিপ্টি মশা।

জিকা ভাইরাস দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) কবে বিশ্বব্যাপী জরুরী অবস্থা ঘোষনা করে?
Answer: ১লা ফেব্রুয়ারী, ২০১৬।
Hints: জিকা ভাইরাস দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় বিশ্বব্যাপী জরুরী অবস্থা ঘোষনা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) । স্বাস্থ্য বিষয়ক এই জরুরী অবস্থা ঘোষনা করে বিশ্বে সংস্থাটি বলেছে মশাবাহিত এই ভাইরাসটির সংক্রমণ ঠেকাতে সমন্বিত প্রচেষ্টা চালাতে হবে।
আফ্রিকায় ইবোলা ভাইরাস সংক্রমন নিযে জরুরী অবস্থা ঘোষনায় দেরী নিয়ে সমালোচনা থাকা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) (০১/০২/২০১৬) তারিখে জিকা ভাইরাস নিয়ে বিশ্বব্যাপী জরুরী অবস্থা ঘোষনা করে বলে জানিয়েছে বিবিসি ও রয়টার্স।

এশিয়া কাপ ক্রিকেটে রানার্স আপ হয়েছে কোন দেশ?
Answer: বাংলাদেশ।
Hints: ২০১৬ ষষ্ঠবারের মত এশিয়া কাপ ক্রিকেটের শিরোপা জিতে ভারত। এবং ২য় বারের মত রানার্স আপ হয় বাংলাদেশ।

এশিয়া কাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশ রানার্স আপ হয়েছে কতবার?
Answer: ২ বার।
Hints: ২০১৬ ষষ্ঠবারের মত এশিয়া কাপ ক্রিকেটের শিরোপা জিতে ভারত। ২য় বারের মত রানার্স আপ হয় বাংলাদেশ।

২০২২ সালে শীতকালীন অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হবে কোথায়?
Answer: চীনের, বেইজিংয়ে।
Hints: পরবর্তী শীতকালীন অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হবে (২০১৮ সালে) পিয়াং ইয়াং, দক্ষিণ কোরিয়া।এবং ২০২২ সালে শীতকালীন অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হবে চীনের, বেইজিংয়ে।

২০১৮ সালে শীতকালীন অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হবে কোথায়?
Answer: পিয়াং ইয়াং, দক্ষিণ কোরিয়া ।
Hints: পরবর্তী শীতকালীন অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হবে (২০১৮ সালে) পিয়াং ইয়াং, দক্ষিণ কোরিয়া।এবং ২০২২ সালে শীতকালীন অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হবে চীনের, বেইজিংয়ে।

৩২তম অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হবে কবে?
Answer: ২০২০ সালে।
Hints: ৩২তম অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হবে ২০২০ সালে। স্থান: টোকিও, জাপান।

৩১তম অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হয়েছে কোথায়?
Answer: রিও-ডি-জেনিরো, ব্রাজিল ।
Hints: ৩১তম অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হয়েছে ২০১৬ সালে। স্থান: রিও-ডি-জেনিরো, ব্রাজিল।

সম্প্রতি কোন টেনিস তারকা ডোপ পরীক্ষায় ধরা পড়েন?
Answer: রাশিয়ান টেনিস তারকা মারিয়া শারাপোভা ।
Hints: অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে ডোপ পরীক্ষায় পজেটিভ হয়েছিলেন রাশিয়ান টেনিস তারকা মারিয়া শারাপোভা। ২০০৬ সাল থেকে স্বাস্থ্যগত কারণে যে মেলডোনিয়াম নিয়ে আসছেন, সেটির জন্যেই ডোপ পরীক্ষায় উতরাতে ব্যার্থ হন তিনি। শারাপোভার দাবি এই ওষুধটি ১০ বছর ধরে নিয়ে আসছেন। কিন্ত্র ১ জানুয়ারয় থেকে যে সেটি নিষিদ্ধ হয়েছে সেটা তিনি জানতেন না।

মাসাক ফনসেকার কী?
Answer: মোসাক ফনসেকা হচ্ছে গোপন সম্পদধারী ব্যক্তিদের আইনি সহয়তা দানকারী ও সেবা দানকারী পানামার একটি প্রতিষ্ঠান।
Hints: মোসাক ফনসেকা হচ্ছে গোপন সম্পদধারী ব্যক্তিদের আইনি সহয়তা দানকারী ও সেবা দানকারী পানামার একটি প্রতিষ্ঠান। মোসাক ফনসেকার ফাঁস হওয়া গোপন নথির সংখ্যা ১ কোটি ১৫ লাখ। ফাঁস হওয়া এসব নথিতে উঠে আসে ২০০ টি দেশের ২ লাখ ১৪ হাজার ব্যক্তির নাম। এই নথিগুলোকে বলা হচ্ছে “পানামা পেপারস”। এসব নথিতে বেরিয়ে এসেছে বিশ্বের ধনী আর ক্ষমতাধারী ব্যক্তিরা কীভাবে কর ফাঁকি দিয়ে গোপন সম্পদের পাহাড় গড়েছেন।

জম্মু-কাশ্মীরের প্রথম নারী মূখ্যমন্ত্রী কে?
Answer: মেহবুবা মুফতি।
Hints: ভারতের জম্মু-কাশ্মীরের প্রথম নারী মূখ্যমন্ত্রী হয়েছেন মেহবুবা মুফতি। পিডিপি-বিজেপি জোট সরকারের মূখ্যমন্ত্রী হিসেবে ০৪ এপ্রিল, ২০১৬ তারিখে তিনি শপথ নিয়েছেন পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টির (পিডিপি) এই নেত্রী।

সম্প্রতি ভারতে অনুষ্ঠিত ICC T-20 World Cup-2016 কত তম আসর?
Answer: ৬ষ্ঠ আসর।
Hints: এবারের ICC T-20 World Cup-2016 আসরটি ৬ষ্ঠ। ২০০৭ সালে প্রথম ICC T-20 World Cup-2016  চালু হয়েছিল।এপর্যন্ত প্রতি ২ বছর পরপর এটি অনুষ্ঠিত হলেও এখন থেকে এটি ৪ বছর পরপর অনুষ্ঠিত হবে।

সম্প্রতি ভারতে অনুষ্ঠিত ICC T-20 World Cup-2016 এ সেরা বোলিং ফিগারটি কার?
Answer: মুস্তাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ।
Hints: এবারের ICC T-20 World Cup-2016 এ সেরা বোলিং ফিগারটি মুস্তাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৪ অভার বল করে ২২ রান দিয়ে ৫ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি ভারতে অনুষ্ঠিত ICC T-20 World Cup-2016 এ সর্বোচ্চ রান কার?
Answer: তামিম ইকবাল, বাংলাদেশ।
Hints: এবারের ICC T-20 World Cup-2016 এ সর্বোচ্চ রান বাংলদেশের ওপেনার তামিম ইকবালের দখলে। তিনি এই টুনার্মেন্টে ২৯৫ রান সংগ্রহ করেন।

 

First Part: বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়বলীর সাম্প্রতিক তথ্য ২০১৫ থেকে ২০১৬ পর্ব ০১

Part Two: বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়বলীর সাম্প্রতিক তথ্য ২০১৫ থেকে ২০১৬ পর্ব ০২

Part Three: বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়বলীর সাম্প্রতিক তথ্য ২০১৫ থেকে ২০১৬ পর্ব ০৩

বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়বলী । সাম্প্রতিক তথ্য SEP 2016

বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়বলীর সাম্প্রতিক তথ্য ২০১৫ থেকে ২০১৬ পর্ব ০৩

বাংলাদশে ও আর্ন্তজাতকি বষিয়বলীর সাম্প্রতকি তথ্য ২০১৫ থকেে ২০১৬ র্পব ০৩

বাংলাদশে ও আর্ন্তজাতকি বষিয়বলীর সাম্প্রতকি তথ্য ২০১৫ থকেে ২০১৬ র্পব ০৩

  1. সম্প্রতি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়কে কোন দুটি বিভাগে ভাগ করা হয়েছে?
    ANSWER: জননিরাপত্তা বিভাগ ও সুরক্ষা বিভাগ।
    HINTS: (জুন ১, ২০১৬ তারিখে) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়কে ভাগ করে দুটি বিভাগ করা হয়েছে- একটি জননিরাপত্তা বিভাগ এবং অন্যটি সুরক্ষা সেবা বিভাগ। জননিরাপত্তা বিভাগের অধীনে রাজনৈতিক ও আইসিটি, পুলিশ, আনসার ও সীমান্ত , আইন ও শৃঙ্খলা, প্রশাসন ও অর্থ এবং উন্নয়ন বিভাগ রয়েছে। এবং সুরক্ষা সেবা বিভাগের অধীনে নিরাপত্তা ও এনটিএমসি (ন্যাশনাল টেলিকম মনিটরিং সেন্টার), অগ্নি ও মাদকদ্রব্য, আইন ও শৃঙ্খলা, বহিরাগমন, কারা ও সমন্বয়, প্রশাসন ও অর্থ এবং উন্নয়ন বিভাগ থাকবে।
  2. বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘতম এবং গভীরতম সুড়ঙ্গ রেলপথ বা টানেল-
    ANSWER: গথার্ড বেস টানেল, সুইজারল্যান্ড।
    HINTS: বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘতম এবং গভীরতম সুড়ঙ্গ রেলপথথ বা টানেল-সুইজারল্যান্ড গথার্ড বেস টানেল। এই বিষ্ময়কর টালেটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছিল ২০০০ সালে। আল্পস পর্বতমালায় নির্মিত গথার্ড বেস টানেল নামের পাতাল রেলপথটি ৫৭ কিলোমিটার লম্বা। এতদিন বিশের দীর্ঘতম সুড়ঙ্গপথের রেকর্ডটি ছিল জাপানের সেইকান টানেলের, যার দৈর্ঘ্য গথার্ড বেস টানেল এর চেয়ে তিন কিলোমিটার কম। এই টানেলের ভেতর দিয়ে দিনে ৩২৫টি যাত্রীবাহী ও মালবাহী ট্রেন চলাচল করবে। প্রতিটি ট্রেন ঘন্টায় ২৪১ কিলোমিটার বেগে মাত্র ২০ মিনিটে ওই সূড়ঙ্গপথ অতিক্রম করবে।
  3. ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ান্স লিগ-২০১৫-১৬ মৌসুমের চ্যাম্পিয়ান দল–
    ANSWER: রিয়াল মাদ্রিদ।
    HINTS: অ্যাতোলেতিকো মাদ্রিদকে টাইব্রেকাওে ৫-৩ গোলে হারিয়ে ১১ বারেরর মতো ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ান্স লিগ ২০১৫-১৬ মৌসুমের শিরোপা জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ। গত বছরের চ্যাম্পিয়ান দল বার্সেলোনা।
  4. ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (ওচখ) এর নবম আসরের সেরা উদীয়মান খেলোয়াড় কে হয়েছেন?
    ANSWER: মুস্তাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ।
    HINTS: ২০১৬ সালের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (ওচখ) এর নবম আসরের চ্যাম্পিয়ান হয়েছে-সানরাইজ হায়দারবাদ। ফাইনালে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু কে ৮ রানে হারিয়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (ওচখ) ক্রিকেটে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ান হয়েছে সানরাইজ হায়দারবাদ। ম্যাচ সেরা হন বেন কাটিং। টুনার্মেন্ট সেরা হয়েছেন বিরাট কোহলী। আর আসরটির সেরা উদীয়মান খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন মুস্তাফিজুর রহমান। সানরাইজ হায়দারবাদ এর হয়ে ১৬ ম্যাচে নিয়েছেন ১৭ উইকেট এবং অভার প্রতি রান দিয়েছেন ৬.৯০।
  5. জাতিসংঘ “এল নিনো ও জলবায়ূ বিষয়ক” বিশেষ দূত হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে——
    ANSWER: মেরি রবিনসন ও ম্যাকারিয়া কামু।
    HINTS: সাবেক আইরিশ প্রেসিডেন্ট মেরি রবিনসন ও কেনিয়ার ক’টনীতিক ম্যাকারিয়া কামুকে “এল নিনো ও জলবায়ূ বিষয়ক” বিশেষ দূত হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব বান-কি-মুন। “এল নিনো” প্রকৃতিতে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে এবং খরা ও বন্যার সৃষ্টি করে। প্রতি দুই থেকে সাত বছরে এল নিনো সৃষ্টি হয়। এল নিনোর ক্ষতিকর প্রভাব দেখা যায় সুদানের মত দেশগুলোর বিভিন্ন স্থানে।
  6. জি-৭ এর ৪২তম শীর্ষ সম্মেলন কোথায় অনুষ্ঠিত হয়?
    ANSWER: জাপানে।
    HINTS: জি-৭ এর ৪২তম শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়- জাপানের ইসে শীমায়। জি-৭ এর ৪১তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় জার্মানিতে। জি-৭ এর বর্তমান সদস্য-কানাড, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, জাপান, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র।
  7. সম্প্রতি নাসার এক গবেষণার ফলাফল অনুযয়ী, বজ্রপাতের নতুন ‘হটস্পট’-
    ANSWER: ভেনুজুয়েলার মারকাইবো হ্রদ।
    HINTS: বিশ্বের সবচেয়ে বজ্রপাত প্রবণ এলাকা ভেনুজুয়েলার মারকাইবো হ্রদ। পৃথিবীর কক্ষপথে নাসার স্থাপিত আবহাওয়া স্যাটেলাইটের লাইটেনিং ইমেজিং সেন্সর থেকে ১৬ বছর ধওে পাওয়া তথ্যে দেখা গেছে, প্রতিবছর হ্রদটির প্রতি বর্গকিলোমিটার এলাকার উপর গড়ে ২৩৩ টি বজ্রপাত হয়। গবেষণা ফলাফলে জানানো হয়েছে, সাগর ও পর্বত উপতক্যা থেকে প্রবাহিত বায়ূ মারকাইবো হ্রদের উষ্ণ পানির উপরিভাগে জড়ো হয়ে প্রতিবছর গড়ে ২৯৭ দিন-রাত্রিকালীন বজ্রঝড় সৃষ্টি করে।
  8. বিখ্যাত ‘বেগম’ পত্রিকার সম্পাদক নুরজাহান বেগম ইন্তেকাল করেন-
    ANSWER: ২৩ মে,২০১৬।
    HINTS: বিখ্যাত ‘বেগম’ পত্রিকার সম্পাদক নুরজাহান বেগম ইন্তেকাল করেন ২৩ মে,২০১৬। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯১ বছর। নারীর অবস্থান উন্নয়ন ও সাহিত্যক্ষেত্রে অবদানের জন্য নুরজাহান বেগম বহু পদক ও সম্মাননা পেয়েছেন। ‘বেগম’ বাংলার প্রথম সচিত্র নারী সাপ্তাহিক। সাহিত্যক্ষেত্রে মেয়েদেরকে এগিয়ে আনার লক্ষ্যে ১৯৪৭ সালের ২০ জুলাই কলকাতা থেকে প্রকাশিত হয়। ১৯৫০ সালে ঢাকায় চলে আসে ‘বেগম’। পত্রিকাটির প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদিকা ছিলেন বেগম সুফিয়া কামাল। পওে পত্রিকাটির সম্পাদনা শুরু করেন নূরজাহান বেগম। ‘বেগম’ এর প্রথম সংখ্যা ছাপা হয়েছিল ৫০০ কপি। মূল্য ছিল ৪ আনা। প্রচ্ছদে ছাপা হয়েছিল বেগম রোকেয়ার ছবি।
  9. ঊট থেকে বৃটেনের বেরিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে জনগণের রায় নিতে সেদেশে গণভোট অনুষ্ঠিত হবে।
    ANSWER: ২৩ জুন, ২০১৬।
    HINTS: ইউরোপিয় ইউনিয়ন বা ঊট থেকে বৃটেনের বেরিয়ে যাওয়ার (যেটি বেক্সিট নামে পরিচিত হয়ে উঠেছে) ব্যাপারে জনগণের রায় নিতে যুক্তরাজ্যে গণভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে-২৩-জুন,২০১৬।
  10. জার্মান কাপ ২০১৬, চ্যাম্পিয়ান—
    ANSWER: বায়ার্ন মিউনিখ।
    HINTS: জার্মান কাপের ফাইনালে বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে টাইব্রেকারে ৪-৩ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান হয় বায়ার্ন মিউনিখ।
  11. কাপা দেল রে ২০১৬, চ্যাম্পিয়ান—
    ANSWER: বার্সেলোনা
    HINTS: বার্সেলোনা সেভিয়াকে ২-০ গোলে পরাজিত করে কোপা দেলরে-২০১৬ শিরোপা অর্জন করে।
  12. লন্ডনের প্রথম মুসলিম মেয়রের নাম?—
    ANSWER: সাদিক খান।
    HINTS: লন্ডনের প্রথম মুসলিম মেয়রের নির্বাচিত হয়েছেন পাকিস্তান বংশোদ্ভূত সাদিক খান।
  13. NASA এর তথ্য মতে সৌরজগতের বাইরে মোট গ্রহের সংখ্যা কত?—
    ANSWER: ৩ হাজার ২৬৪ টি।
    HINTS: সৌরজগতের বাইরে আরও ১ হাজার ২৮৪ টি গ্রহের সন্ধান পেয়েছেন জোতির্বিজ্ঞানীরা।মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা এ ঘোষণা দিয়েছে। সবমিলিয়ে সৌরজগতের বাইরে মোট গ্রহের সংখ্যা ৩ হাজার ২৬৪ টি।
  14. সম্প্রতি বাংলাদেশের দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয় জাতীয় দুর্যোগ হিসেবে ঘোষনা দিয়েছে?—
    ANSWER: বজ্রপাতকে।
    HINTS: সরকারি নথিতে বজ্রপাতকে দুর্যোগ হিসেবে গণ্য করা হত না। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা-সংক্রান্ত জাতীয় পরিকল্পনা ২০১০-২০১৫ এ মোট ১২ টি প্রাকৃতিক দুর্যোগের কথা উল্লেখ আছে। তবে এর মধ্যে বজ্রপাত নেই। বজ্রপাতে হতাহতের ঘটনাকে জাতীয় দুর্যোগ হিসেবে ঘোষণা করেছে সরকার। সম্প্রতি বজ্রপাতে সারা দেশে মোট ৮১ জনের মৃত্যু হয়।
  15. WHO এর মতে বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত শহর ইরানের —
    ANSWER: জবল
    HINTS: WHO এর মতে বিশ্বের চরম বায়ূ দূষণের শহর হিসেবে শীর্ষে রয়েছে ইরানের জাবল শহর। এ তালিকায় এর পরেই স্থান পেয়েছে ভারতের গোয়ালিয়র ও এলহাবাদ। এরপরই স্থান পেয়েছে সৌদি আরবের দুটি শহর রাজধানী রিয়াদ এবং আল জুবেইল।
  16. ফিফার প্রথম নারী মহাসচিব কে?
    ANSWER: ফাতমা সাম্বা দিওফ সামৌরা।
    HINTS: প্রথম নারী হিসেবে ফিফার মহাসচিব হিসেবে নিয়োগ পেলেন সেনেগালের ফাতমা সাম্বা দিওফ সামৌরা। ২১ বছর ধওে জাতিসংঘের বিভিন্ন কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত ফাতমা সাম্বা দিওফ সামৌরা। ১৯৯৫ সালে জাতিসংঘে যোগ দেয়ার পর এখ নপর্যন্ত ছয়টি ভিন্ন ভিন্ন দেশে কাজ করেছেন তিনি। ফিফার বর্তমান সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো।
  17. সম্প্রতি বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক মানুষ মৃত্যুবরণ কবে?
    ANSWER: ১২ মে, ২০১৬।
    HINTS: বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বয়সী মানুষ “সুসান্নাহ মুশাত জোনস” ১২ মে, ২০১৬ রাতে যুক্তরাষ্ট্রের নিউহয়ার্কে মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ১১৬ বছর।
  18. বন্ধ হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় শরণার্থী শিবির?
    ANSWER: দাবাব, কেনিয়ায়।
    HINTS: কেনিয়া সরকার সম্প্রতি দাবাব শরণার্থী শিবির বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে। এই ক্যাম্পে ৩৩০০০০ সোমালিয় রিফিউজি রয়েছে। দাবাব বিশ্বের সবচেয়ে বড় শরণার্থী শিবির হিসেবে পরিচিত। কেনিয়া সরকার জানিয়েছে জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থেই এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
  19. ম্যান বুকার পুরষ্কার-২০১৬, পেয়েছেন-
    ANSWER: হান কাঙ, দক্ষিণ কোরিয়া।
    HINTS: সাহিত্যের অন্যতম সম্মানজনক পুরষ্কার ম্যান বুকার পুরষ্কার-২০১৬ পেলেন দক্ষিণ কোরিয়ার “হান কাঙ”। দ্য ভেজেটেরিয়ান উপন্যাসের জন্য তিনি এ পুরষ্কার পেয়েছেন।
  20. ফ্রান্সে “কান চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৬”, এটি কততম আসর-
    ANSWER: ৬৯ তম।
    HINTS: ২০১৬ সালে ফ্রান্সে “কান চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৬” উৎসব টি ৬৯ তম আসর।
  21. মাসাক ফনসেকার ফাস হওয়া গোপন নথির সংখ্যা ——
    ANSWER: ১ কোটি ১৫ লাখ।
    HINTS: মোসাক ফনসেকা হচ্ছে গোপন সম্পদধারী ব্যক্তিদেও আইনি সহয়তা দানকারী ও সেবা দানকারী পানামার একটি প্রতিষ্ঠান। মোসাক ফনসেকার ফাঁস হওয়া গোপন নথির সংখ্যা ১ কোটি ১৫ লাখ। ফাঁস হওয়া এসব নথিতে উঠে আসে ২০০ টি দেশের ২ লাখ ১৪ হাজার ব্যক্তির নাম।
  22. সম্প্রতি বাংলাদেশে বৃটেনের বাণিজ্যদূত নির্বাচিত হয়েছেন————–
    ANSWER: রুশনারা আলী।
    HINTS: বাংলাদেশে বৃটেনের বাণিজ্যদূত নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত ব্রিটিশ এমপি রুশনারা আলী।
  23. লিৎজার পুরষ্কার-২০১৬ লাভ করে——-
    ANSWER: Associated Press (AP) & Washington Post.
    HINTS: পুলিৎজার পুরষ্কার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ছাপার সাংবাদিকতা, সাহিত্য এবং সঙ্গীতের সর্বোচ্চ পুরষ্কার হিবেবে বহুল সমাদৃত। নিউ ইয়ার্ক সিটিতে অবস্থিত কলাম্বিয়া ইউনিভার্সিটি এর প্রশাসকের ভূমিকা পালন করে। এক অর্থে জোসেফ পুলিৎজার ও উইলিয়াম হার্স্ট হলুদ সাংবাদিকতার প্রতিষ্ঠাতাদের মধ্যে অন্যতম। পুলিৎজার নামের এই হাঙ্গেরীয়-মার্কিন সাংবাদিকই পুলিৎজার পুরষ্কারের প্রচলন করেন। ১৯১১ সালে মৃত্যুর সময় পুলিৎজার কলাম্বিয়া ইউনিভার্সিটিতে প্রচুর পরিমাণ অর্থ রেখে গিয়েছিলেন। তার অর্থের কিছু অংশ দিয়ে ১৯১২ সালে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা স্কুল গঠিত হয়েছিল। এই অর্থের মাধ্যমে ১৯১৭ সালের ৪ঠা জুন প্রথম পুলিৎজার পুরষ্কারের ঘোষণা দেয়া হয়। বর্তমানে প্রতিবছর এপ্রিল মাসে পুরষ্কারটি ঘোষিত হয়। একটি স্বাধীন বোর্ড বিজয়ী নির্বাচন করে থাকেন।
  24. ফিফার সর্বশেষ দুটি সদস্য দেশের নাম————–
    ANSWER: কসোভো ও জিব্রাল্টার।
    HINTS: কসোভো (২১০ তম সদস্য) এবং জিব্রল্টার (২১১ তম সদস্য) এ দুটি নতুন দেশকে নিয়ে এখন ফিফার সদস্যসংখ্যা হলো ২১১। মেক্সিকোতে গত(১৩ মে,২০১৬) তারিখে শেষ হওয়া ফিফা কংগ্রেস সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটে এদুটি দেশকে ফিফা সদস্য দেশ হিসেবে গ্রহণ করা হয়।
  25. বর্তমান দেশের সর্বশেষ ৪৯০তম উপজেলার নাম————–
    ANSWER: কর্ণফূলী
    HINTS: চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার কর্ণফূলী থানাকে উপজেলায় উন্নীত করেছে সরকার। দেশের মোট উপজেলা সংখ্যা এখন ৪৯০টি। পটিয়া উপজেলার ২২ টি ইউনিয়ন থেকে ৫ টি ইউনিয়নকে নিয়ে কর্ণফূলী উপজেলা গঠন করা হয়েছে। এই উপজেলার জনসংখ্যা এক লক্ষ ৬২ হাজার ১৪০ জন।
  26. রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়টি কোথায় স্থাপিত হচ্ছে?
    ANSWER: সিরাজগঞ্জের শাজাদপুরে।
    HINTS: সিরাজগঞ্জের শাজাদপুরে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়টি হবে দেশের (৩৯তম) সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়।
  27. হাইকোর্টে সংবিধানের ১৬ তম সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেয় কবে?
    ANSWER: ৫ মে, ২০১৬।
    HINTS: বিচারকদের অপসারনের ক্ষমতা সংসদের হাতে ন্যস্ত করে আনা সংবিধানের ১৬ তম সংশোধনী অবৈধ ঘোসণা করেছেন মহামান্য হাইকোর্ট। এর আগে উচ্চ আদালতের বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা সংসদের কাছে ফিরিয়ে নিতে ২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টমবর সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী আনা হয়। বিলটি পাশের পর একই বছরের ২২ সেপ্টমবর তা গেজেট আকার প্রকাশিত হয়। ১৯৭২ সালে মূল সংবিধানে উচ্চ আদালতের বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা জাতীয় সংসদের উপর ন্যাস্ত ছিল। ১৯৭৫ সালের ২৪ জানুয়ারি সংবিধানের ৪র্থ সংশোধনীর মাধ্যমে এই ক্ষমতা রাষবট্রপতির হাতে ন্যাস্ত করা হয়। পওে সংবধানের পঞ্চম সংশোধনীর মাধ্যমে জিয়াউর রহমানের শাসনামলের বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের কাছে ন্যাস্ত হয়।
  28. দেশের ২৩ তম স্থল বন্দর কোনটি?
    ANSWER: বাল্লা স্থলবন্দর
    HINTS: দেশের ২৩ তম স্থল বন্দর হল বাল্লা স্থলবন্দর। অবস্থান চুনারঘাট, হবিগঞ্জ।
  29. পরবর্তী (৭ম) টি-২০ বিশ্বকাপ কবে অনুষ্ঠিত হবে?
    ANSWER: ২০২০ সালে।
    HINTS: এখন থেকে টি-২০ বিশ্বকাপ ৪ বছর পরপর অনুষ্ঠিত হবে। পরবর্তী (৭ম) টি-২০ বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে ২০২০ সালে অস্ট্রেলিয়ায়।
  30. পদার্থ বিজ্ঞনের ব্রেকথ্রু পুরষ্কার পেলেন বাংলাদেশর ——-
    ANSWER: সেলিম শাহরিয়ার ও দীপাঙ্কর তালুকদার।
    HINTS: ব্রেক থ্রু প্রাইজের ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্য অনুযয়ী, বিজ্ঞানী আইনস্টাইন ১০০ বছর আগে যে মহাকর্ষ তরঙ্গেরকথা বলেছিলেন, তা শনাক্ত করার জন্য বিশেষ এই পুরষ্কার পাচ্ছেন লেজার ইন্টারফেরোমিটার গ্রাভিটেশন- ওয়েব অবজারভারটেরি বা লাইগোর প্রতিষ্ঠাতা রোনাল্ড ডাব্লিউ পি ড্রিভার, কিপ এস থ্রোন, রেইনার ওয়েসিস এই আবিষ্কারের সঙ্গে যুক্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ১ হাজার ১২ জন বিজ্ঞানী । তিন মিরিয়ন ডলারের এই পুরস্কারের অর্থ দুইভাগে ভাগ হবে। লাইগোর প্রষ্ঠিাতা তিনজন মিলে পাবেন এক মিলিয়ন মার্কিন ডলার আর বাকি ১ হাজার ১২ জন গবেষক মিলে পাবেন বাকি দুই মিলিয়ন ডলার। চলতি বছরের শেষে একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের হাতে এই পুরষ্কর তুলে দেওয়া হবে।
  31. ইংলিশ পিমিয়ার লীগ ফুটবলের ২০১৫-২০১৬ মৌসুমের চ্যাম্পিয়ান হয় কোন ক্লাব?
    ANSWER: লেস্টার সিটি
    HINTS: ক্লাবটির ১৩২ বছরের ইতিহাসে এই প্রথমবার ইংলিশ পিমিয়ার লীগ জিতলো।
  32. এএফসি অনুর্ধ-১৬ মেয়েদের ফুটবলের আঞ্চলিক (মধ্য ও দক্ষিণাঞ্চল) চ্যাম্পিয়নশিপে টানা দ্বিতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ান হয় কোন দেশ?
    ANSWER: বাংলাদেশ।
    HINTS: ভারতেকে ৪-০ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে এএফসি অনুর্ধ-১৬ মেয়েদের ফুটবলের আঞ্চলিক (মধ্য ও দক্ষিণাঞ্চল) চ্যাম্পিয়নশিপে টানা দ্বিতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ান হয় বাংলাদেশের মেয়েরা।
  33. বিশ্ব ব্যাংকের মতে, বাংলাদেশের আগামী অর্থবছরে (২০১৬-১৭) প্রবৃদ্ধি হবে————-
    ANSWER: ৬.৮%।
    HINTS: আগামী অর্থবছরে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি ৬.৮ শতাংশ হবে বলে প্রাক্কলন করেছে বিশ্বব্যাংক। তবে চলতি অর্থবছরে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) দেওয়া সাময়িক হিসাবে ৭.৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির যে হিসাব দেওয়া হয়েছে সে বিষয়ে সংশয় প্রকাশ করেছে বিশ্বব্যাংক। ডেভেলপমেন্ট আপডেট শীর্ষক প্রতিবেদন প্রকাশ উপলক্ষে এই সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করে বিশ্বব্যাংক।
  34. কোন দেশ কোনো বৈশ্বিক টুনার্মেন্ট আয়োজন করতে পারবে না, এই মর্মে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে?
    ANSWER: দক্ষিণ আফ্রিকা।
    HINTS: অশেতাঙ্গ ক্রিকেটারের কোটা পূরণ না হওয়ার জন্য দক্ষিণ আফ্রিকা কোন প্রকার বৈশ্বিক টুনার্মেন্ট আয়োজন করতে পারবে না। শুধু ক্রিকেট নয়, রাগবি, নেটবল ও অ্যাথোলেটিকসও পেয়েছে এই নিষেধাজ্ঞা। গত বছর (২০১৫ সালে) দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের সঙ্গে একটা চুক্তি হয়েছিল দেশের ৫ টি ফেডারেশন। সেটি অনুসাওে, দলে অন্তত্ব ৬০ ভাগ অশেতাঙ্গ খেলোয়াড় থাকার কথা। কিন্তু ক্রিকেটে সেই হার ৫৫ শতাংশ।
  35. বাংলাদেশের বিদেশী মুদ্রার রিজার্ভ ২৯ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করে কবে?
    ANSWER: ২৫ এপ্রিল, ২০১৬।
    HINTS: রপ্তানি আয় বৃদ্ধি এবং আমদানিতে ধীর গাতির কারণে বাংলাদেশের বিদেশী মুদ্রার রিজার্ভ ২৯ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করেছে বলে মনে করেন বাংলাদেশ ব্যাংক। এর আগে ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৬ তারিখে বাংলাদেশের বিদেশী মুদ্রার রিজার্ভ ২৮ বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করেছিল।
  36. “প্যারিস জলবায়ূ চুক্তি” কোথায় স্বাক্ষরিত হয়?
    ANSWER: নিউ-ইয়ার্কে।
    HINTS: প্যারিস জলবায়ূ চুক্তিতে স্বাক্ষর করে ইউরোপিয় ইউনিয়ন ও ১৭৪ টি দেশের সরকার বা রাষ্ট্রপধানেরা এবং তাদের প্রতিনিধিরা। ২২ এপ্রিল (বিশ্ব ধারীত্রি দিবসে) নিউ-ইয়ার্কে ১৭৪টি দেশ ও একটি সংস্থাকে নিয়ে মোট ১৭৫টি পক্ষের স্বাক্ষরদান নিঃসন্দেহে একটি ঐকিহাসিক ঘটনা। সম্মেলনে বিশ্বের তাপমাত্রা প্রাক শিল্পায়ন পর্বের তাপমাত্রার তুলনায় কিছুতেই ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরে উঠতে না দেওয়ার এ সমঝোতার পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোকে সহয়তার ব্যাপারেও ঐক্যমত্য হয়।
  37. বিশ্বের প্রথম অঞ্চল হিসেবে কোন মহাদেশ থেকে ম্যালেরিয়া নির্মূল হয়েছে বলে WHO ঘোষনা দেয়?
    ANSWER: ইউরোপ থেকে।
    HINTS: সম্প্রতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) জানিয়েছে, ইউরোপ বিশ্বের প্রথম অঞ্চল যেখান থেকে ম্যালেরিয়া নির্মূল করা সম্ভব হয়েছে ।
  38. যুক্তরাষ্ট্র নতুন ২০ ডলারে প্রথমবারের মত একজন আফ্রিকান-আমেরিকান হিসেবে কার ছবি থাকবে?
    ANSWER: হ্যারিয়েট টাবম্যানের
    HINTS: যুক্তরাষ্ট্র নতুন ২০ ডলারের যে নোট বাজারে ছাড়বে, তাতে প্রথমবারের একজন আফ্রিকান-আমেরিকান এর ছবি থাকবে। তাঁর নাম হ্যারিয়েট টাবম্যানের। শুধু টাবম্যানই নন নতুন ৫ ও ১০ ডলারের নোটেও নতুন মুখ আসছে। এদের মধ্যে রয়েছেন অধিকার নেতা মার্টিন লুথার কিং ও সর্বজনীন মানবাধিকারের ঘোসণার অন্যতম প্রণেতা মিসেস ইলেনর রুজভেল্ট।
  39. বাংলাদেশের কোথায় সর্ববৃহৎ চুনাপাথরের খনির সন্ধান পাওয়া গেছে?
    ANSWER: নওগাঁয়
    HINTS: নওগাঁয় দেশের সবচেয়ে বড় চুনাপাথরের খনির সন্ধান পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নজরুল হামিদ। নওগাঁয় জেলার বদলগাছি উপজেলার তাজপুরে ভূতত্ত্ব অধিদপ্তর এই খনি আবিষ্কার করেছে।

বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়বলীর সাম্প্রতিক তথ্য ২০১৫ থেকে ২০১৬ পর্ব ০১

বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়বলীর সাম্প্রতিক তথ্য ২০১৫ থেকে ২০১৬ পর্ব ০২

স্কয়ার দিয়ে যত নাম । আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী

বিগত বছরের প্রশ্ন অনুসারে প্রতি বিসিএস পরীক্ষাতে আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী এর গুরুত্বপূর্ণ স্থান নিয়ে প্রশ্ন থাকে। স্কয়ার দিয়ে যত স্থানের নাম আছে তার একটা লিস্ট আপনাদের সামনে তুলে ধরছি । মুখস্ত করে ফেলুন, সংগ্রহে রাখুন।

 

আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী

*বঙ্গবন্ধু স্কয়ার = ফ্রান্স
*বীরশেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফ স্কয়ার = রাঙামাটি
*বাংলাদেশ স্কয়ার = লাইবেরিয়া
*রাসেল স্কয়ার = ঢাকা
*তাস্কিম স্কয়ার = তুরস্ক
*ইউনিভার্সিটি স্কয়ার = সানা, ইয়েমেন
*তিয়েনমেন স্কয়ার = বেইজিং, চীন
*গ্রীন স্কয়ার = ত্রিপলী, লিবিয়া
*রেড স্কয়ার = রাশিয়া
*ট্রাফালগার স্কয়ার = লন্ডন
*ডেমক্রেসি স্কয়ার = কম্বোডিয়া
*তাহরির স্কয়ার = কায়রো, মিশর
*আজাদি স্কয়ার = তেহরান, ইরান
*স্বাধীনতা স্কয়ার = কিয়েভ, ইউক্রেন
*পার্ল স্কয়ার = কায়রো, মিশর